*** করোনা প্রতিরোধে, জরুরি প্রয়োজন ছাড়া আপনারা ঘর থেকে বের হবেন না। *** ঘন ঘন সাবান দিয়ে দুই হাত কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড পরিষ্কার করবেন। *** যেখানে সেখানে কফ ও থুতু ফেলবেন না। *** হাত দিয়ে নাক, মুখ ও চোখ স্পর্শ করবেন না। *** হাঁচি বা কাশির সময় টিস্যু অথবা কাপড় দিয়ে বা বাহুর ভাঁজে নাক-মুখ ঢেকে ফেলুন। *** কারো মধ্যে করোনার বিন্দুমাত্র কোন লক্ষণ দেখা দিলে হটলাইনের ১৬২৬৩ বা ৩৩৩ নম্বরে ফোন করে সাহায্য চাইবেন। *** সবাই ভাল থাকুন।


Our Educational Websites:     আলোর পাঠশালা.কম     EducatorBD.com     BiologyLovers.com     Biology-World.com     BiologyLearners.com     BiologyBD.com     GaziSalahuddin.com    




বিজ্ঞান সৃজনশীল প্রশ্ন (JSC Science Creative Question)


দ্বিতীয় অধ্যায় : জীবের বৃদ্ধি ও বংশগতি



(ক) জ্ঞানমূলক প্রশ্ন :


১। অ্যামাইটোসিস কোষ বিভাজন কাকে বলে?
২। ক্যারিওকইনেসিস কাকে বলে?
৩। সাইটোকাইনেসিস কাকে বলে?
৪। ইন্টারফেজ কাকে বলে?
৫। প্রাণীদেরহের কোথায় মাইটোসিস কোষ বিভাজন ঘটে?
৬। কোন ধরনের কোষ বিভাজনে জননকোষ উৎপন্ন হয়?
৭। মিয়োসিস কোষ বিভাজনে নিউক্লিয়াস ও ক্রোমোজমের কয়বার বিভাজন ঘটে?
৮। কোষ চক্র কী?
৯। ক্রোমোজোম কাকে বলে?
১০। ক্রোমোজমের প্রধান দুটি অংশ কী কী?
১১। সেন্ট্রোমিয়ার কী?
১২। বংশগতির জনক কে?
১৩। নিউক্লিক এসিড কয় ধরনের?

(খ) অনুধাবনমূলক প্রশ্ন :


১। জিন বলতে কী বুঝায়?
২। মাইটোসিস কোষ বিভাজনকে সমিকরণিক বিভাজন বলা হয় কেন?
৩। মিয়োসিস কোষ বিভাজন কোথায় ঘটে?
৪। ক্যারিওকাইনেসিস ও সাইটোকাইনেসিসের প্রধান দুটি পার্থক্য লেখ।
৫। জাইগোটকে প্রাণীর সূচনালগ্ন বলা হয় কেন?
৬। মাইটোসিসকে বর্ধনশীল অঞ্চলের বিভাজন বলা হয় কেন?
৭। কোষ বিভাজনের প্রয়োজনীয়তা লেখ।
৮। মিয়োসিসকে হ্রাসমূলক বিভাজন বলা হয় কেন?
৯। প্রোফেজ ও টেলোফেজ দশার দুটি পার্থক্য লেখ।
১০। ডিএনএকে জিন নামে অভিহিত করা হয় কেন?
১১। হ্যাপ্লয়েড ও ডিপ্লয়েড বলতে কি বুঝ?
১২। প্রবাহ চিত্রের সাহায্যে মিয়োসিস বিভাজন দেখাও।



(গ) প্রয়োগ ও (ঘ) উচ্চতর দক্ষতামূলক প্রশ্ন :



১। নিচের উদ্দীপকটি লক্ষ্য কর এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও: [পাঠ্য পুস্তক]